চট্টগ্রামে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান, ৪০ হাজার টাকা জরিমানা।

0
7

গিরি সৈকত ডেস্ক ঃ

চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের এক অভিযান পরিচালনা করা হয়। আজ ২৪ এপ্রিল শনিবার সকাল ১০টা হতে পরিচালিত অভিযানে ৭ প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় মোট ৪০,০০০/- ( চল্লিশ হাজার টাকা) প্রশাসনিক জরিমানা করা হয়েছে।
চট্টগ্রাম মহানগরীর আগ্রাবাদ, হালিশহর, ফইল্যাতলী বাজার, পাহাড়তলী চালের আড়ৎ এলাকায় উক্ত অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক জনাব মোহাম্মদ ফয়েজ উল্যাহ্, সহকারী পরিচালক (মেট্রো) জনাব পাপীয়া সুলতানা লীজা ও চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান। অভিযানে সহায়তা করেন এপিবিএন, ৯ এর সদস্যবৃন্দ।

vokta-1
অভিযানে হালিশহর থানার আই বøকের হোসেন ফার্মেসিকে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ সংরক্ষণ করায় ৩ হাজার টাকা, ইকবাল মেডিক্যাল হলকে মেয়াদ বিহীন কাটা ঔষধ রাখায় ৪ হাজার টাকা জরিমানা করে কাটা, মেয়াদোত্তীর্ণ ও অননুমোদিত ঔষধ ধ্বংস করা হয়। একই এলাকার কাঁচা বাজারের মাহিন পোলট্রি ফার্মকে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ২ হাজার জরিমানা করে সতর্ক করা হয়। হালিশহর আর্টিলারি রোডের তাজ ট্রেডার্সকে অননুমোদিত রং ও এনার্জি ড্রিঙ্ক রাখায় ৭ হাজার টাকা জরিমানা করে বর্ণিত পণ্য ধ্বংস করা হয়। চুনা ফ্যাক্টরি মোড়ের সদাই স্টোরকে মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য সংরক্ষণ ও মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করায় ৮ হাজার টাকা জরিমানা করে বর্ণিত মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য (আটা, ময়দা, চিপস) ধ্বংস করা হয়। অভিযানে অননুমোদিত রং, অননুমোদিত এনার্জি ড্রিঙ্ক, মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যপণ্য ধ্বংসসহ ৪টি কম ওজনের বাটখারা জব্দ করা হয়। ফইল্যাতলী কাঁচা বাজারের সৌরভ পোলট্রি এন্ড সেলস সেন্টারকে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ও চরম নোংরা পরিবেশে মুরগী জবাই ও প্রক্রিয়া করায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আবুল হোসেনের মাংসের দোকানকে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা এবং কম ওজনের বাটখারা সংরক্ষণ করায় ৬ হাজার জরিমানা করে ৪টি বাটখারা জব্দ করা হয়।
আড়ৎ ও কাঁচা বাজারসমূহ পরিদর্শনকালে ভোক্তাসাধারণের মাঝে ভোক্তা অধিকার বিষয়ক লিফলেট-প্যাম্ফলেট বিতরণ করা হয়। পাশাপাশি বিক্রেতাদের মাস্ক পরিধান করতে, ক্রেতাগণকে মাস্ক পরিধানপূর্বক নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে পণ্য ক্রয় এবং পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে প্রতারিত হলে অধিদপ্তরের হট লাইন নম্বর ১৬১২১ এ অভিযোগ জানাতে অনুরোধ করা হয়।
চট্টগ্রাম জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ এর সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান জানান, জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক স্যারের অর্পিত ক্ষমতাবলে এবং জেলা প্রশাসক চট্টগ্রাম স্যারের সার্বিক সহায়তায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয় কর্তৃক এই অভিযান চালানো হয়। জনস্বার্থে এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।